আজ বিশ্ব থ্যালাসিমিয়া দিবস।





শেয়ার

বিয়ের আগে রক্ত পরীক্ষা কেন করবেন?


থ্যালাসিমিয়া একটি মারাত্মক জন্মগত রোগ। কোন পরিবারে স্বামী-স্ত্রী দুজনেই যদি থ্যালাসিমিয়া রোগের বাহক হন তবে তাদের সন্তানদের এই রোগ হতে পারে। বিয়ের আগে থ্যালাসিমিয়া বাহক কিনা জানলে সন্তানদের মধ্যে রোগটি সহজেই প্রতিরোধ করা যায়।

বাংলাদেশে প্রতি ১৪ জনে ১ জন থ্যালাসিমিয়া রোগের বাহক। হিমোগ্লোবিন ইলেকট্রোফোরেসিস নামে রক্ত পরীক্ষা করে থ্যালাসিমিয়া বাহক নির্ণয় করা হয়। রক্তের গ্রুপের সাথে থ্যালাসিমিয়ার কোন সম্পর্ক নেই। এই বিষয়ে সচেতন হোন ও প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।


থ্যালাসিমিয়া কি?
থ্যালাসিমিয়া একটি রক্তের রোগ। এই রোগে আক্রান্ত শিশুদের শরীরে রক্তের লাল কণিকা পর্যাপ্ত পরিমাণে তৈরি হয় না। ফলে তারা মারাত্মক রক্তশূন্যতায় ভোগে। থ্যালাসিমিয়া রোগীরা আজীবন প্রতি মাসে ১-২ ব্যাগ রক্ত গ্রহণ করে বেঁচে থাকে। এই রোগের চিকিৎসা ব্যয়বহুল।


থ্যালাসিমিয়া রোগের লক্ষণ কি?
শিশু জন্মের ১-২ বছরের মধ্যে থ্যালাসিমিয়া রোগ ধরা পড়ে। এর লক্ষণগুলো হল- ফ্যাকাশে হয়ে যাওয়া, দুর্বলতা, ঘন ঘন ইনফেকশন, শিশুর ওজন বৃদ্ধি না পাওয়া, জন্ডিস, খিটখিটে মেজাজ ইত্যাদি।

বিস্তারিত জানতে এই লিফলেটটি পড়ুন: thals.org/awareness_leaflet

 

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, বিশ্বে থ্যালাসেমিয়া রোগের বাহক প্রায় ২৫০ মিলিয়ন। বাংলাদেশে প্রায় ১০-১২ শতাংশ মানুষ থ্যালাসেমিয়া রোগের বাহক। বিশ্বে প্রতি বছর এক লাখ শিশু থ্যালাসেমিয়া নিয়ে জন্মগ্রহণ করে।

বিশ্ব থ্যালাসেমিয়া দিবস উপলক্ষে দেয়া এক বাণীতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মুজিববর্ষে স্বাস্থ্য অধিদফতর ও বাংলাদেশ থ্যালাসিমিয়া ফাউন্ডেশন প্রতিটি জেলায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সরকারি-বেসরকারি দফতরে সচেতনামূলক অনুষ্ঠান, থ্যালাসেমিয়া বাহক নির্ণয়ের জন্য বিনামূল্যে স্ক্রিনিং, সব থ্যালাসেমিয়া রোগীকে অনলাইন রেজিস্ট্রেশনের আওতাভুক্ত করা এবং দরিদ্র ও সহায়-সম্বলহীন রোগীদের সুচিকিৎসা নিশ্চিত করাসহ নানাবিধ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে।

শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের সরকার ক্যান্সার, কিডনি, লিভার সিরোসিসের পাশাপাশি থ্যালাসেমিয়া রোগীদের চিকিৎসার জন্য ৫০ হাজার টাকা অনুদান প্রদান শুরু করেছে।সরকার স্বাস্থ্যসেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে সাড়ে ১৮ হাজার কমিউনিটি কিনিক ও ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্র গড়ে তোলা হয়েছে।

স্বাস্থ্য


শেয়ার