আজকের সর্বশেষ

একজন মানবিক মানুষ সন্দ্বীপের ইউএনও খোরশেদ আলম চৌধুরী

সাবেক মেয়র মনজুর আলম অসংখ্য কর্মসংস্থান সৃষ্টি করেছেন : -মোস্তফা-হাকিম গ্রুপের শিল্প প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনকালে ব্রুনাই রাষ্ট্রদূত

অমর একুশে নাট্যকার পলাশের ভিন্ন রকম আয়োজন

বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু জাফর মাহমুদ ফাউন্ডেশনের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ

সন্দ্বীপে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বইচিন্তার বর্ণমালা র‌্যালি

সন্দ্বীপে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বইচিন্তার বর্ণমালা র‌্যালি

সন্দ্বীপ ওয়েলফেয়ার সোসাইটির চিত্রাংকন প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠানে বক্তারা: প্রতিভা বিকাশে শিশুকে সৃজনশীল কাজে যুক্ত রাখতে হবে

"দ্য হোয়াইট হোল" রোবোটিক্স ক্লাবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তারা: উদ্ভাবনের নতুন যুগের উন্মোচন


প্রভোস্টকে হেনস্থা করায় চবির মূল ফটক অবরোধ





শেয়ার

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) সূর্যসেন হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. এএইচএম রায়হান সরকারকে হেনস্তা করায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক অবরোধ করে হলের শিক্ষার্থীরা। অভিযুক্ত ব্যক্তি হলেন বিশ্ববিদ্যালয়েরই সাবেক ছাত্র।

বুধবার (১০ মে) রাত আটটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সূর্যসেন হলের দিকে এ ঘটনা ঘটলে শিক্ষার্থীরা মূল ফটক অবরোধ করে এবং অভিযুক্তকে ধরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে হস্তান্তর করে।

জানা যায় অভিযুক্ত ওই শিক্ষার্থীর নাম, সুরজিৎ বড়ুয়া। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র।

এর আগে সন্ধ্যায় হল প্রভোস্ট পরিদর্শনে বের হয়। এসময় তিনি হলের বাইরের শিক্ষার্থীদের হলের আশপাশ থেকে সরিয়ে দিতে থাকে। এসময় অভিযুক্ত সুরজিৎ বাইক নিয়ে হলের দিকে যাওয়ার সময় তাকে আটকানোর চেষ্টা করেন প্রভোস্ট। তবে সে তা উপেক্ষা করে চলে যান। ফেরার পথে আবারো আটকানোর চেষ্টা করলে সে গালাগালি এবং ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ করে। এসময় অভুযুক্তের বাবা বাইকের পেছনের সীট থেকে তাকে থামানোর চেষ্টা করলেও ব্যর্থ হয়। এমনকি সে প্রভোস্টকে গুলি করে হত্যারও হুমকি দেয়।

এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা তাকে বিশ্ববিদ্যালয় ২ নং গেইট এলাকা থেকে ধরে জিরো পয়েন্ট নিয়ে আসেন। পরে সে প্রভোস্টের পায়ে ধরে ক্ষমা চাইলে প্রভোস্ট তাকে ক্ষমা করে দেন।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর ড. মো. আহসানুল কবীর বলেন, সূর্যসেন হলের প্রভোস্টকে হেনস্তা করায় শিক্ষার্থীরা ফটক অবরোধ করেছিলেন। পরে অভিযুক্ত ওই শিক্ষার্থী প্রভোস্টের পায়ে ধরে ক্ষমা চাইলে প্রভোস্ট তাকে ক্ষমা করে দেন। এরপর শিক্ষার্থীরা ফটক খুলে দেয়।

সারাদেশ


শেয়ার

আরও পড়ুন