প্রেম করে বিয়ে, এক মাসের মাথায় লাশ হলো কিশোরী





শেয়ার

রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলায় মোবাইল ফোনে প্রেম করে বিয়ের এক মাসের মাথায় লাশ হলো নুপুর রাণী (১৭) নামে এক নববধূ। তার পরিবারের দাবি, নুপুরকে হত্যার পর আত্মহত্যার নাটক সাজিয়েছে তার শ্বশুর বাড়ির লোকজন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় স্বামীর বাড়ির ঘরে তীরের সাথে গলায় রশি পেঁচানো অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

পুলিশ ও গৃহবধূর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, পরিবারের অজান্তে নুপুরের সাথে এক বছর আগে মুঠোফোনে প্রেমের সম্পর্কে জড়ায় রহিমাপুর খিয়ার পাড়া গ্রামের আদেশ সরকারের ছেলে স্বপন সরকার। এরই পরিপ্রেক্ষিতে তাদের বিয়ে হয়।

 

নুপুরের বাবা কৈলাশ চন্দ্রের অভিযোগ, প্রেমেই সর্বনাশ করলো আমার মেয়েটার। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের জন্য আমার মেয়েকে শারীরিক নির্যাতন করতো স্বামীসহ তার পরিবারের লোকজন।

তারাগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) সিরাজুল ইসলাম বলেন, পুলিশ লাশ উদ্ধার করে শনিবার ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পরপরই স্বপন ও তার বাবা বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছেন। এ বিষয়ে নুপুরের বাবা একটি ইউডি মামলা করেছেন। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত বলা যাবে না এটি হত্যা, নাকি আত্মহত্যা।

 

সারাদেশ


শেয়ার