বেলজিয়ামের কাছে ১–০ গোলে হেরে দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে ছিটকে পড়েছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোরা।





শেয়ার

খেলার ডেস্কঃ দ্বিতীয়ার্ধে একচেটিয়া প্রাধান্য দেখিয়েছে ইউরোর বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। কিন্তু সেভিয়ায় বিশ্বের এক নম্বর দল বেলজিয়ামের কাছে ১–০ গোলে হেরে দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে ছিটকে পড়েছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোরা।  ৪২ মিনিটে তোরগান আজারে অসাধারণ একটি গোল জিতিয়ে দিল বেলজিয়ামকে।    প্রথমার্ধের শেষে চোট পান বেলজিয়ামের কেভিন ডি ব্রুইনা। বিরতির পর মাঠে নামলেও তিন মিনিটের মধ্যেই উঠে যেতে হয় ম্যানচেস্টার সিটি তারকাকে। এরপর ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ পুরোপুরি পর্তুগালের। কিন্তু আসল কাজ গোল করা হলো না তাদের।    প্রথম ৪০ মিনিটে যে কয়েকটি হাফ-চান্স তৈরি হয়েছে, তার সবগুলোই পর্তুগিজদের। প্রতিপক্ষের রক্ষণে তারা প্রথম ভীতি ছড়ায় ষষ্ঠ মিনিটে। তবে ফাঁকায় বল পেয়ে ডি-বক্সে ঢুকে দিয়োগো জটা যে শটটি নিলেন তা লক্ষ্যের কাছেও ছিল না।  

 

২৫ মিনিটে থিবো কোর্তোয়ার পরীক্ষা নেন রোনালদো। তার ফ্রি কিক ঝাঁপিয়ে ফেরান বেলজিয়ান গোলরক্ষক।  ধীরে ধীরে গুছিয়ে ওঠা বেলজিয়াম ৪২তম মিনিটে তাদের প্রথম উল্লেখযোগ্য আক্রমণেই এগিয়ে যায়। তমা মুনিয়ের পাস ডি-বক্সের বেশ বাইরে পেয়ে একটু আড়াআড়ি এগিয়ে বুলেট গতির শট নেন তোরগান আজার। বল শেষ মুহূর্তে সামান্য বাঁক নিয়ে গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে জালে ঢুকে যায়।    পায়ে অস্বস্তি থেকে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে মাঠ ছেড়ে যান বেলজিয়ামের গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় কেভিন ডে ব্রুইনে।  শুরুর মতো এই অর্ধেও চাপ ধরে রাখে পর্তুগাল। ৫৮তম মিনিটে দারুণ একটি সুযোগও পায় তারা। কিন্তু রোনালদোর পাস পেনাল্টি স্পটের কাছে পেয়ে উড়িয়ে মারেন লিভারপুল ফরোয়ার্ড জটা।    ৭০-৮০ এই ১০ মিনিটে কয়েকটি ফাউলের ঘটনা ঘটেছে। এতে ম্যাচে উত্তেজনা ছড়িয়েছে। পর্তুগালের এক ও বেলজিয়ামের দুজন হলুদ কার্ডও দেখেন। পরপর দুই মিনিটে দারুণ দুটি সুযোগ পায় পর্তুগাল। তবে রুবেন দিয়াসের হেড গোলরক্ষক ফেরানোর পর রাফায়েল গেররোরর শট বাধা পায় পোস্টে।

ফুটবল


শেয়ার