আজকের সর্বশেষ


রিয়াল মাদ্রিদ শিবিরে অস্বস্তি, ফুরফুরে মেজাজে চেলসির ফুটবলারেরা।





শেয়ার

 

ইতিমধ্যে আজকের ম্যাচের লাইন-আপ ঘোষনা করেছে দুই দল। রিয়াল মাদ্রিদ একাদশ ( ইডেন হ্যাজার্ড, মার্কো আসেন্সি্‌ ,অ্যান্ড্রিয় লুনি, আলভারো অদ্রিওজোলা, ইস্কো, মারিয়ানো, রদ্রিগো গোজ, ডিয়েগো আলটিউব সুয়ারেজ, সার্জিও আরিবাস, অ্যান্টোনিও ব্ল্যাঙ্কো, মিগুয়েল গুতিয়েরেজ)। চেলসি একাদশ (কেপা আরিজাবালাগা, মার্কোস আলোনসো মেন্ডেজ, ট্যামি আব্রাহাম, উইলি কাবায়েরো, কার্ট জোউমা, ও. জিরু, সি. হাদসন-ওদোই, এইচ. জিয়েখ, বি. গিলমার, আর. জেমস, কে. হাভেরটজ, এমারসন)।

 

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ সেমিফাইনালে প্রথম পর্বের দ্বৈরথের আগে রিয়াল মাদ্রিদ শিবিরে অস্বস্তি। ফুরফুরে মেজাজে চেলসির ফুটবলারেরা।

রবিবার ঘরের মাঠে রিয়াল বেতিসের বিরুদ্ধে ড্র করে লা লিগার খেতাবি দৌড়ে রিয়াল কিছুটা পিছিয়ে পড়ছে। তার উপরে চোটের কারণে এই ম্যাচেও খেলতে পারবেন না রক্ষণের অন্যতম ভরসা অধিনায়ক সের্খিয়ো র‌্যামোস। করোনায় আক্রান্ত হয়ে দল থেকে ছিটকে গিয়েছেন মিডফিল্ডার ফেদেরিকো ভালভার্দে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ সেমিফাইনালের আগে বিশ্রাম দেওয়ার জন্য রিয়াল বেতিসের বিরুদ্ধে টোনি খোস, ভিনিসিয়াস জুনিয়রদের খেলাননি জ়িদান। সোমবার সাংবাদিক বৈঠকে রিয়াল ম্যানেজার বলেছেন, “এই মরসুমের সব চেয়ে কঠিন ম্যাচ আমরা খেলতে নামব। কারণ, এটা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ।লিভারপুলকে হারিয়ে সেমিফাইনালে ওঠা জ়িদান যোগ করেছেন, “চেলসির বিরুদ্ধে আমাদের অনেক বেশি সতর্ক হয়ে খেলতে হবে। রক্ষণ শক্তিশালী করতে হবে। পাশাপাশি, গোলের সুযোগও তৈরি করে যেতে হবে। চেলসির মতো দলের বিরুদ্ধে সব সময় সেরাটা দেওয়ার লক্ষ্য নিয়েই খেলতে হবে।চোট সারিয়ে প্রায় ছসপ্তাহ পরে রিয়াল বেতিসের বিরুদ্ধে মাঠে নেমেছিলেন এডেন অ্যাজ়ার। মঙ্গলবার পুরনো দলের (চেলসি) বিরুদ্ধে বেলজিয়ান তারকাকে খেলাতে পারেন জ়িদান।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে চেলসির চ্যাম্পিয়ন হওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই। তবে আগের ম্যাচে ওয়েস্ট হ্যামকে হারিয়ে মাদ্রিদে পৌঁছেছেন আত্মবিশ্বাসী টিমো ওয়ার্নার-রা। মাতেও কোভাসিচ ছাড়া দলে আর কোনও ফুটবলারের চোট নেই। চেলসি ম্যানেজার থোমাস টুহল সোমবার সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেছেন, “আমরা জয়ের খিদে নিয়েই মাঠে নামব। ভুল-ভ্রান্তিহীন নিখুঁত খেলাই লক্ষ্য থাকবে।এফসি পোর্তোকে হারিয়ে শেষ চারে ওঠা চেলসি ম্যানেজার আরও বলেছেন, “এই ম্যাচটা শুধু গুরুত্বপূর্ণ নয়, অত্যন্ত কঠিনও। আশা করছি, সেই মানসিকতা নিয়েই খেলব।চেলসি ম্যানেজার অবশ্য ক্ষুব্ধ আগামী মরসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে উয়েফা দল বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়ায়। গত সপ্তাহেই ইউরোপের ফুটবল নিয়ামক সংস্থা ঘোষণা করেছে, আগামী মরসুম থেকে ৩২-র বদলে ৩৬টি দল চ্যাম্পিয়ন্স লিগে অংশ নেবে। গ্রুপ পর্বে একটি করেই ম্যাচ খেলবে দলগুলি। টুহল বলেছেন, “আমি একেবারেই খুশি নই এই নতুন পরিকল্পনায়।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ চারের প্রথম পর্বের দ্বৈরথে রিয়ালকেই এগিয়ে রাখছেন বিশেষজ্ঞেরা। প্রথম কারণ যদি হয় এই প্রতিযোগিতায় স্পেনীয় ক্লাবের অবিশ্বাস্য সাফল্য। ১৩ বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছে রিয়াল। চেলসি জিতেছে মাত্র এক বার। তাও নবছর আগে। দ্বিতীয় কারণ, ইপিএলে এই মরসুমে চেলসির ছন্দে না থাকা। জ়িদান যদিও একমত নন বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে। তাঁর কথায়, “আমাদের মতো চেলসিও যোগ্য দল হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ চারে যোগ্যতা অর্জন করেছে। তাই এই ম্যাচটা একেবারেই সহজ হবে না। চেলসি দলে একাধিক অভিজ্ঞ ফুটবলার রয়েছে, যারা এই পর্যায়ে খেলতে অভ্যস্ত।

ফুটবল


শেয়ার