লামা পৌরসভা নির্বাচন: ৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী আনোয়ার হোসেন সোহেল





শেয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদক: চলতি বছরে আসন্ন লামা পৌরসভার পৌর নির্বাচনে ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে আনোয়ার হোসেন সোহেলকে যোগ্য প্রার্থী হিসাবে বিবেচনা করে ইতিমধ্যে তাকে বিজয়ী করার কাজ শুরু করেছেন তার সমর্থকেরা।

 

স্থানীয় একাধিক লোকজনের সাথে সোহেলের বিষয়ে কথা বলে জানা যায়, অবহেলিত লামা পৌরসভার উন্নয়নের জন্য ছাত্র ও যুব সমাজের প্রিয় মুখ আনোয়ার হোসেন সোহেল এর  বিকল্প বর্তমান সময়ে তারা কাউকে দেখছেন না। তাই  ভবিষ্যতের কথা বিবেচনা করে তারা এমনটি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তারা আরো বলেন, আশা করি ৭নং ওয়ার্ডে প্রতিটি সচেতন মানুষ আমাদের এ সিদ্ধান্তের সাথে ঐক্যতা প্রকাশ করে  সোহেলকে আগামী পৌর নির্বাচনে কাউন্সিলর  হিসাবে নির্বাচিত করবেন।

 

স্কুলের ছাত্র থাকাকালিন সময়ে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের সেই অমর কবিতা “এবারের সাংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম ” শুনে নিজের অজান্তে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের প্রেমে পড়ে যান এ সোহেল। শুরু হয় ছাত্ররাজনীতিতে জীবনের নতুন অধ্যায়। ছাত্র রাজনীতিতে নিজের ত্যাগী ও পরিশ্রমের মাধ্যমে নিজেকে প্রমাণ করে নজর কাড়েন তৎকালীন ছাত্রলীগ, আওয়মীলীগ ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শিত সাধারণ মানুষের।

 

মোকাবেলা করেছেন ১/১১ এর মত কঠিন সময়। ১/১১ বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে গ্রেফতার করা হলে অনেকের মত লুকিয়ে না থেকে রাজপথে মিছিল, মিটিং, সমাবেশ করেছেন পরিক্ষিত বঙ্গবন্ধুর এ সৈনিক।দেশের যে কোন কঠিন সময়ে দেশ মাতৃকার টানে রাজপথে প্রথম সারিতে থেকে প্রমাণ করেছেন নিজেকে। বিএনপি-জামাতের দুঃশাসন, রাষ্ট্রীয় সম্পদ রক্ষা ও ছাত্র সমাজের অধিকার আদায়ের কথা বলতে গিয়ে মিথ্যা মামলা সহ নির্যাতিত হয়েছেন একাধিক বার। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদশের্র প্রতি তার ভালবাসা, বিশ্বাস, সততা ও যোগ্যতা বিবেচনার মধ্য দিয়ে  

২০০৮ সালে আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর লামা পৌর ও উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা কর্মীদের নিয়ে,বিভিন্ন ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডের ঝড়ে পড়া মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে বঙ্গবন্ধু সোনার বাংলা গড়ার শপথে কাজ শুরু করার পাশাপাশি সহযোগিতা করছেন বিভিন্ন সরকারি কাজে।

 

নতুন প্রজম্মকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস ও হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সঠিক আদর্শকে তরুন প্রজম্মের মাঝে ছড়িয়ে দিয়ে সমৃদ্ব করছেন শিক্ষা, শান্তি, প্রগতির পতাকাকে।

 

২০১৩ সালে পুনরায় আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর শুরু হওয়া বিএনপি, জামাত ও শিবিরের জ্বালাও-পোড়াও সহ যাবতীয় বর্বরতার বিরুদ্ধে তার অবস্থান ছিলো লৌহ মানবের মত। দেশের এই কঠিন সময়ে  ছাত্রলীগ নেতা কর্মীদের সাথে নিয়ে রাজপথ দখলে রাখার স্মৃতি ও জামাত-শিবিরকে লামা পৌরসভা থেকে বিতাড়িত করা দৃশ্য প্রমাণ করেই তিনিই সাবেক ছাত্রনেতা এখন বর্তমানে কাউন্সিলর হওয়ার একমাত্র যোগ্য দাবিদার।।

 

এ ব্যাপারে আনোয়ার হোসেন সোহেল এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি কখনো কাউন্সিলর নির্বাচন করার স্বপ্ন দেখিনি। সারা জীবন বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ছাত্র সমাজের মাঝে প্রতিষ্ঠা করতে চেয়েছি। লামা স্থানীয় জনগণ আমাকে অনেক বেশি স্নেহ করেন বলে আমাকে ৭নং ওর্য়াড়ে কাউন্সিলর  বানানোর স্বপ্ন দেখছেন। সেই কারণে আমি এখন নিজে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি। তবে দলীয় সিনিয়র নেতাদের একটি সিদ্ধান্ত আছে, যদি দলীয় ভাবে আমাকে মনোনয়ন দেত্তয়া হয় আমি অবশ্যই আমার সমস্ত শক্তি দিয়ে ৭নং ওর্য়াড়ের উন্নয়নের জন্য যে কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবো। পাশাপাশি যারা আমাকে কাউন্সিলর  হিসাবে পেতে চাই তাদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ এবং এলাকা বাসীর কাছে দোয়া কামনা করছি।

 

নির্বাচন


শেয়ার