পত্রিকা বিক্রয় করতে এসে বই কিনলেন হকার





শেয়ার

সন্দ্বীপে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে সমকাল সুহৃদ সমাবেশ সন্দ্বীপ, ভোরের পাখি সাহিত্য মেলা ও বইচিন্তার সমন্বিত আয়োজনে মাসব্যাপি ভ্রাম্যমাণ বইমেলার উদ্বোধন করা হয়। ১ ফেব্রুয়ারি বুধবার সরকারি হাজী আবদুল বাতেন কলেজ চত্বরে উদ্বোধন হওয়া বইমেলাটি সন্দ্বীপের ৫টি কলেজ ও ২৮টি স্কুলে ঘুরবে। ইতিমধ্যে, ভ্রাম্যমাণ বইমেলাটি মুছাপুর বদিউজ্জামান হাই স্কুল, সন্দ্বীপ বীচ, মগধরা স্কুল এন্ড কলেজ ও সন্দ্বীপ আনন্দ পাঠশালায় ঘুরে শিশু-কিশোরদের বই পড়তে উদ্বুদ্ধ করে। এরই ধারাবাহিকতায় ৮ ফেব্রুয়ারি বুধবার ৬ষ্ঠ দিনে আবুল কাসেম হায়দার মহিলা কলেজে ভ্রাম্যমাণ বইমেলা অনুষ্ঠিত হয়। কলেজ চলাকালীন সময়ে পত্রিকা বিক্রয় করতে এসে ভ্রাম্যমাণ বইমেলা চোখে পড়লে উৎফুল্ল হয়ে বই ক্রয় করেন পত্রিকা হকার মোঃ সাদ্দাম হোসেন।
সাদ্দাম হোসেন বলেন, 'আমি খবর বিক্রি করি, পত্রিকার পাশাপাশি বইও পড়ি। বই পড়তে খুব ভালো লাগে। বই পড়েও অনেক কিছু জানা যায়।'
অধ্যক্ষ মোঃ হানিফ বলেন, 'বই মানুষের আত্মার খোরাক। আমাদের আত্মার খোরাক মিটাতে ভ্রাম্যমাণ বইমেলার উদ্যোগকে স্বাগত জানাই এবং সংশ্লিষ্ট সকলকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।'
সন্দ্বীপ ভ্রাম্যমাণ বইমেলায় পাওয়া যাচ্ছে সন্দ্বীপের প্রবীণ এবং তরুণ লেখকদের বই সহ দেশি-বিদেশি বিভিন্ন লেখকের বই। বিক্রি হচ্ছে নবী-রাসুলের জীবনী, বিভিন্ন ইসলামিক বই, বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ, শেখ রাসেল,  ভ্রমণকাহিনী, সায়েন্স ফিকশান, ভূতের গল্প, রুপকথার গল্প, প্রেমের গল্প, অনুপ্রেরণা মূলক, কবিতা, খেলাধূলা সহ নানা ধরনের বই।
বই বিষয়ক সংগঠন বইচিন্তা'র সমন্বয়ক নজরুল নাঈম বলেন, ‘সন্দ্বীপে প্রথমবারের মতো ব্যতিক্রমী আয়োজন ভ্রাম্যমাণ বইমেলায় ভালোই সাড়া পাচ্ছি। আত্ম-উন্নয়নের মাধ্যম বইয়ের সান্নিধ্যে এনে মানুষকে জ্ঞানের আলোয় উজ্জীবিত করার লক্ষ্যে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।'
আয়োজক ভোরের পাখি সাহিত্য মেলা'র সাধারণ সম্পাদক সাজিদ মোহন বলেন, 'ভ্রাম্যমাণ বইমেলা পুরো সন্দ্বীপে সাড়া জাগিয়েছে। প্রতিনিয়ত বই বিক্রি বাড়ছে। বইমেলাটি সন্দ্বীপের ইতিহাসে মাইল ফলক হয়ে থাকবে।'
বইমেলা শুরুর পর থেকে গোটা সন্দ্বীপব্যাপি মানুষের আগ্রহ দেখা গেছে। সোশাল মিডিয়া থেকে শুরু করে বিভিন্নভাবে বই কেনার আগ্রহ প্রকাশ করছে জ্ঞান পিপাসু মানুষ। সাধুবাদ জানিয়েছেন সুশীল সমাজের ব্যক্তিবর্গরাও।
সন্দ্বীপ প্রেস ক্লাব সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্পাদক সাইফ রাব্বী বলেন, এমন উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসার দাবিদার। এটি সন্দ্বীপের ইতিহাসে প্রথম বইমেলা। এমন উদ্যোগ নিয়মিত হলে কিশোর-কিশোরীরা বিপথে না গিয়ে  সুন্দরের পথ বেঁচে নিবে।
৬ষ্ঠ দিনের ভ্রাম্যমাণ এই বইমেলায় উপস্থিত ছিলেন- প্রভাষক মিজানুর রহমান, প্রভাষক রাবেয়া, প্রভাষক মোজাহিদ, প্রভাষক অমিত রয়, প্রভাষক সিরাজুল মাওলা, কবি ও প্রাবন্ধিক মোস্তফা হায়দার, সন্দ্বীপ প্রেস ক্লাব সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্পাদক সাইফ রাব্বী, ভোরের পাখি সাহিত্য মেলার সভাপতি ইসমাইল হোসেন মনি, সাধারণ সম্পাদক  সাজিদ মোহন, সংস্কৃতিকর্মী সঞ্জিব চন্দ্র রায়, লেখক ও সমাজকর্মী বখতিয়ার হোসেন, বই বিষয়ক সংগঠন বইচিন্তা টিমের- মাহামুদুল ইসলাম, আবদুর রহমান ইমন, মোঃ শাওন, মোঃ ফাহাদ, আবদুর রহিম মিনহাজ, রাহুল প্রমুখ।

চট্টগ্রাম


শেয়ার