করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অভিযান,৩৩ টি মামলায় জরিমানা ৯ হাজারের অধিক





শেয়ার

চট্টগ্রাম : চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের ২০ জন ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের লক্ষে চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। অভিযানে  বিভিন্ন অপরাধে ৩৩ টি মামলায় ৯ হাজার ৪৫০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অভিযানে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। অভিযান পরিচালনাকালে ৫ হাজার মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে।

 

গত ৪ এপ্রিল রবিবার নগরীর কর্ণফুলী ব্রীজ এলাকায় কোভিড-১৯ এর সাম্প্রতিক ঊর্ধ্বগতি বিবেচনায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, নাজমা বিনতে আমিন।

নগরীর বায়জিদ বায়জিদ বোস্তামি মাজার এলাকা, সেনানিবাসের গেইট মার্কেট, শের শাহ বাজার এলাকায় কোভিড-১৯ এর সচেতনতা তৈরিতে দুপুর ১২ ঘটিকা থেকে দুপুর ২ ঘটিকা পর্যন্ত প্রচারণা চালান চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সোহেল রানা। এ সময় স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাস্ক পরিধানের ব্যাপারে জনসাধারণকে সচেতন করা হয়। 

 

অভিযানে গণপরিবহনের চালক ও যাত্রীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে সতর্ক করা হয়। আজকের অভিযানে মাস্ক পরিধান না করায় ও অতিরিক্ত যাত্রি পরিবহনের জন্য ৩ ব্যক্তি ও ৮ যানবাহন চালক, মোট ১১ জনকে মোট ২  হাজার একাশত টাকা জরিমানা প্রদান করা হয়।

কাটগড় বাজার, পতেঙ্গা বীচ, ইপিজেড এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন পতেঙ্গা সার্কেল এসিল্যান্ড,এহসান মুরাদ। বন্দর এলাকায় কোভিড-১৯ এর সচেতনতা তৈরিতে প্রচারণা  চালান সহকারী কমিশনার মাসুমা জান্নাত। নগরীর মেহেদীবাগ এলাকায় কোভিড-১৯ এর সাম্প্রতিক ঊর্ধ্বগতি বিবেচনায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ জিল্লুর রহমান। এ সময় স্বাস্থ্যবিধি মেনে না চলায় ২ মামলায় ২ জনকে ৬০০ টাকা জরিমানা দেওয়া হয়। এছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ব্যাপারে নির্দেশনা প্রদান করা হয়।

 

এ কে খান এলাকায় কোভিড-১৯ সংক্রমণ রোধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন ফাহমিদা আফরোজ । দেওয়ানহাট মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন- এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সোনিয়া হক। নগরীর লালখান বাজার এলাকায় কোভিড-১৯ এর সাম্প্রতিক ঊর্ধ্বগতি বিবেচনায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট প্লাবন কুমার।

 

নগরীর বায়জিদ এলাকা, বায়জিদ বোস্তামি মাজার এলাকা, সেনানিবাসের গেইট মার্কেট,  কাটগড় বাজার, পতেঙ্গা বীচ, ইপিজেড কাজির দেউড়ী দেওয়ানহাট  সিআরবি এবং সার্কিট হাউজ সংলগ্ন স্টেডিয়াম মার্কেটে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

চট্টগ্রাম


শেয়ার