১লাখ ৪৬ হাজার ইয়াবার চালান,গন্তব্যে পৌঁছলেই পেতো ৩ লাখ টাকা!





শেয়ার

চট্টগ্রাম: ১ লাখ ৪৬ হাজার ইয়াবা। টেকনাফ থেকে চট্টগ্রাম পৌঁছে দিলেই তারা পেতো ৩ লাখ টাকা।এই অনৈতিক কাজের লোভ সামলাতে পারেনি তিনজন। তাদের মধ্যে দুইজন শিক্ষার্থী ও একজন কৃষক। অবশেষে পুলিশের হাতে এই ইয়াবাসহ ধরা পড়লো তিনজন। আজ বৃহস্পতিবার (২৪ ডিসেম্বর) দুপুরে হালিশহর জেলা পুলিশ লাইন্সে আয়োজিত ব্রিফিংয়ে এই ঘটনার বিস্তারিত তুলে ধরেন জেলা পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক।

 

ব্রিফিংয়ে তিনি আরো জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আনোয়ারা থানাধীন কালাবিবির দিঘীর মোড় এলাকায় বাঁশখালী-চট্টগ্রাম সড়কে চেকপোস্ট বসিয়ে আনোয়ারা থানা ও পটিয়া থানা পুলিশের যৌথ অভিযানে এসব ইয়াবার চালানটি উদ্ধার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে দুইটি মোটরসাইকেল ও তাদের ব্যবহৃত পাঁচটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়েছে।

 

গ্রেফতারকৃত তিনজন হলো- কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানাধীন দমদমিয়া হ্নীলা এলাকার নুরুল হকের ছেলে মাহমুদুল হক (২৩), সদর ইউনিয়নের লেঙ্গুরবিল এলাকার সালেহ আহমদের ছেলে মো. ইব্রাহিম (২৬) ও একই এলাকার খলিলুর রহমানের ছেলে জাহেদ হোসাইন (২৫)।

 

পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক জানান, আটককৃতরা জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে তারা টেকনাফ থেকে এসব ইয়াবার চালান চট্টগ্রাম নিয়ে আসছিল। চট্টগ্রামে এ ইয়াবার চালান পৌঁছে দিলে তারা তিন লাখ টাকা পেত। তারা কার কাছে এসব চালান পৌঁছানোর কথা ছিল তা খুঁজে বের করা হবে।

 

তিনি আরও জানান, গ্রেফতার তিনজনের মধ্যে মাহমুদুল হক বিবিএ ও জাহেদ হোসাইন উচ্চ মাধ্যমিকের শিক্ষার্থী এবং ইব্রাহিম কৃষিকাজ করেন। তারা বহনকারী হিসেবে ইয়াবা নিয়ে আসছিলেন।

 

প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মশিউদ্দৌলা রেজা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) মহিউদ্দীন মাহমুদ সোহেল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (পটিয়া সার্কেল) তারিক রহমান, আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম দিদারুল ইসলাম সিকদার।  

 

চট্টগ্রাম


শেয়ার