চট্টগ্রামে কোটি টাকা ও ইয়াবাসহ রোহিঙ্গা দম্পতি আটক





শেয়ার

চট্টগ্রাম:মহানগরীর চান্দগাঁও আবাসিক এলাকার একটি বাসা থেকে ইয়াবা বিক্রির এক কোটি সতের লক্ষ এক হাজার পাঁচশ টাকা ও পাঁচ হাজার তিনশ পিস ইয়াবাসহ রোহিঙ্গা দম্পতিকে আটক করেছে র‌্যাব-৭।

 

৬টি সিম কার্ড,৪ টি বিভিন্ন নামের জন্ম সনদ,২টি ভুয়া জাতীয় সনদ ও ১টি জাতীয়তা সনদ জব্দ করা হয় তাদের কাছ থেকে। এতেই বুঝা যায়,নগরীতে কি পরিমাণ রোহিঙ্গা ছড়িয়ে পড়েছে এবং তারা বিভিন্ন অপরাধ কর্মকান্ডেও লিপ্ত হয়ে পড়েছে।

 

এবিষয়ে র‌্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক(মিডিয়া) সিনিঃ সহঃ পুলিশ সুপার মোঃ মাহমুদুল হাসান মামুন গত সোমবার জানান,গত ৮ নভেম্বর রবিবার সকালে চান্দগাঁও আবাসিক এলাকায় অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমান টাকা ও ইয়াবাসহ এক রোহিঙ্গা দম্পতিকে আটক করা হয়েছে। আটককৃত আসামী দম্পতি হলেন মিয়ানমারের নাগরিক মোঃ শওকত ইসলাম(৩২) ও স্ত্রী মোরজিনা(২৮)।

 

এবিষয়ে র‌্যাব -৭ এর পরিচালক লেঃ কর্নেল মশিউর রহমান জুয়েল জানান,গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চট্টগ্রাম মহানগরীর চান্দগাঁও থানাধীন চান্দগাঁও আবাসিক এলাকায় অভিযান চালিয়ে একজন মায়ানমার নাগরিককে আটক করা হয়। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে একই আবাসিক এলাকার ব্লক-বি এর তার ভাড়া বাসার ২য় তলায় অভিযান চালিয়ে তার ও তার স্ত্রীর কাছ থেকে পাঁচ হাজার তিনশ পিস ইয়াবা ও মাদক বিক্রির নগদ এক কোটি সতের লক্ষ এক হাজার পাঁচশ টাকা উদ্ধার করা হয়।

 

এছাড়া তিনি আরও জানান,রোহিঙ্গা দম্পতি র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে জানালা দিয়ে টাকা ছুঁড়ে ফেলে দেয়। এসময় তল্লাশি চালিয়ে টাকাগুলো উদ্ধার করা হয়।  প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রোহিঙ্গা দম্পতি র‌্যাবকে জানায়,তারা মিয়ানমারের নাগরিক এবং মিয়ানমার হতে ইয়াবা সংগ্রহ করে অবৈধভাবে বাংলাদেশে ঢুকে চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বাসা ভাড়া করে ইয়াবাসহ বিভিন্ন ধরনের মাদকের ব্যবসা করে আসছে।

 

এদিকে আটক রোহিঙ্গা দম্পতির বিরুদ্ধে নগরীর চান্দগাঁও থানায় নিষিদ্ধ মাদক রাখা এবং অবৈধভাবে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের অপরাধে দেশের প্রচলিত আইনে দুটি পৃথক মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানান এই র‌্যাব কর্মকর্তা।

 

চট্টগ্রাম


শেয়ার