নারীর প্রতি সহিংসতা ও ধর্ষণের প্রতিবাদে বিশ্বভরা প্রাণের মানববন্ধন





শেয়ার

সৈকত প্রকৃতিঃ "জাগো মানুষ" এই স্লোগানকে সামনে রেখে - নারীর প্রতি সহিংসতা ও ধর্ষণের প্রতিবাদে বিশ্বভরা প্রাণ চট্টগ্রাম মহানগর ও জেলা শাখা কতৃক  শনিবার ১০ই অক্টোবর বিকেল ৫ টায় চট্টগ্রাম চেরাগীর মোড়ে মানববন্ধনের  আয়োজন করা হয়।

 

এই সময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্বভরা প্রাণ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সুশান্ত মৈত্র।

চট্টগ্রাম মহানগর কমিটির সভাপতি আনন্দ প্রকৃতি, সহ-সভাপতি নীলিমা বড়ুয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈকত প্রকৃতি, প্রকাশনা সম্পাদক আয়েন উদ্দীন, প্রশিক্ষণ সম্পাদক লিটন নন্দী, পরিকল্পনা ও প্রকল্প উন্নয়ন সম্পাদক জসীম উদ্দীন রণ। আর ও উপস্থিত ছিলেন লেখক ও সংগঠক শুক্কুর চৌধুরী। বিশ্বভরা প্রাণ চট্টগ্রাম জেলা কমিটির সদস্য তাপস দাশ ও শিমলী দাশ। নারী কল্যাণ মঞ্চের প্রতিষ্ঠাতা আরিকা মাইশা এবং অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।

 

বক্তারা বলেন ধর্ষণ মানবিকতার শত্রু।একজন মানবিকবোধ সম্পন্ন মানুষ কখনো ধর্ষণকে সমর্থন করতে পারে না। পুরুষতান্ত্রিক সমাজে সকলকে  মানবিক মানুষ হওয়ার আহ্বান জানান বক্তারা।

 

চট্টগ্রাম মহানগর কমিটির সভাপতি আনন্দ প্রকৃতি বলেন- ধর্ষণ বন্ধ করতে হলে মানুষের প্রথমে চিত্তকে শুদ্ধকরতে হবে। 

আর চিত্ত শুদ্ধি করতে মানুষের আহার শুদ্ধির গুরুত্ব অপরিসীম। 

তার জন্য মানুষকে প্রকৃতিসম্মত জীবনাচরণ ও খাদ্যাভ্যাস গ্রহণ করতে হবে।

 

একজন মানুষের চিত্তকে শুদ্ধ করার জন্য খাদ্য পরিবর্তন বা খাদ্য তালিকা গুরুত্বপূর্ণ। মানুষ যেসব খাবার গ্রহণ করে সেসব খাবার ঐ মানুষের জীবনে প্রতিক্রিয়া ও প্রভাব বিস্তার করে,

যার জন্য আহার সংযম খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

সঠিক ও শুদ্ধ আহার শরীর ও মনকে শান্ত রাখে। 

যা চিত্তশুদ্ধির সহায়ক আর চিত্তশুদ্ধ থাকলে মানুষের ইন্দ্রিয় সংযম বা নিয়ন্ত্রণ থাকবে। 

যার ফলে ধর্ষণের সংখ্যা কমে আসবে।

 

সকল বক্তারা ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি 

মৃত্যুদন্ড করার দাবী জানান।

বক্তারা বলেন- ধর্ষণ মামলা দ্রুত সময়ে নিষ্পত্তি করার জন্য আলাদা ট্রাইব্যুনাল

গঠন করতে হবে, 

যাতে ধর্ষণকারীরা এবং অপরাধীরা দ্রুত সময়ে শাস্তি পাই, সমাজ থেকে অপরাধ ও ধর্ষণকে নির্মূল করতে হবে।

নারীর প্রতি সহিংসতা ও নির্যাতন বন্ধ করতে হবে। 

 

বর্তমানে সমাজে সর্বস্তরে নারীরা লাঞ্চিত ও হেনস্থার স্বীকার হচ্ছে।

কর্মক্ষেত্রে নারীরা যাতে বৈষম্য ও অপমানের স্বীকার না হয় তারজন্য 

নারীদেরকে যথাযথ মর্যাদায় সকল কর্মক্ষেত্রে কাজের  সুষ্ট পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে।

 

সর্বোপরি নারীবান্ধব, অহিংস, অসাম্প্রদায়িক ও দুর্নীতিমুক্ত একটি স্বনির্ভর বাংলাদেশের প্রত্যাশা করেন বক্তারা।

চট্টগ্রাম


শেয়ার