টেকসই উন্নয়নে বন বিষয়ক গবেষণার বিকল্প নেই





শেয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিবের সঙ্গে বাংলাদেশ বন গবেষণা ইনস্টিটিউট(বিএফআরআই)-এর কর্মকর্তাদের একটি মতবিনিময় সভা আজ ৮ অক্টোবর বৃহস্পতিবার বিএফআরআই-এর মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। 

 

উক্ত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব জিয়াউল হাসান এনডিসি। 

 

বিএফআরআই-এর পাবিলসিটি অফিসার এয়াকুব আলীর সঞ্চালনায়

সভায় সভাপতিত্ব করেন বিএফআরআই-এর পরিচালক ড. মো. মাসুদুর রহমান। মতবিনিময় সভায় বিএফআরআই-এর পরিচিতি ও গবেষণা কার্যক্রম পাওয়ার পয়েন্টে উপস্থাপন করেন বিএফআরআই-এর পরিচালক। এতে ইনস্টিটিউটের এপর্যন্ত উদ্ভাবিত ৫০টি প্রযুক্তির পরিচিতি এবং গবেষণা কার্যক্রম আরও ত্বরান্বিত করার জন্য ভবিষ্যত কর্ম-পরিকল্পনা সম্পর্কে আলোচনা করা হয়।  

 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব জিয়াউল হাসান এনডিসি বলেন, ‘বর্তমানে জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবিলায় বৈজ্ঞানিক গবেষণা অত্যন্ত প্রয়োজন। টেকসই উন্নয়নে বন বিষয়ক গবেষণার বিকল্প নেই। জনগণের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য বিএফআরআই-এর উদ্ভাবিত প্রযুক্তির সম্প্রসারণের কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে। বন বিষয়ে গবেষণা সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য সরকারের পক্ষ থেকে সকল ধরনের সহায়তা প্রদান করা হবে।’

 

সভাপতির বক্তব্যে বিএফআরআই পরিচালক বলেন, ‘বাংলাদেশ বন গবেষণা ইনস্টিটিউট দেশের একমাত্র বন বিষয়ক গবেষণা

প্রতিষ্ঠান হিসেবে বন ও বনজ সম্পদ উন্নয়নে নিরন্তর গবেষণা করে যাচ্ছে। বন বিভাগ এবং বাংলাদেশ বন গবেষণা ইনস্টিটিউট-এর

সমান্তরালভাবে উন্নয়ন না ঘটলে বন সেক্টরের কাক্সিক্ষত উন্নয়ন টেকসই হবে না। অতএব, উভয় প্রতিষ্ঠানকে সমান্তরালভাবে এগিয়ে

নিয়ে যেতে হবে।’

 

চট্টগ্রাম


শেয়ার