দেশের গন্ডি পেরিয়ে শেখ হাসিনা এখন বিশ্ব নন্দিত নেতা: রেজাউল করিম চৌধুরী





শেয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ জাতির পিতার কন্যা জননেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী, দেশরতœ শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে তাঁর নিরোগ দীর্ঘায়ু কামনায় খতমে কোরআন, দোয়া মাহফিল, মোনাজাত ও  আলোচনা সভার আয়োজন করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত চসিক মেয়র পদপ্রার্থী, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মো. রেজাউল করিম চৌধুরী।

 

আজ সকালে নিজ বাসভবন প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে রেজাউল করিম বলেন, আমাদের প্রিয় নেত্রী এখন আর নির্দিষ্ট গন্ডিতে সীমাবদ্ধ নন। তিনি এখন বিশ্বনন্দিত একজন রাষ্ট্রনায়ক, বিশ্ব শান্তির অগ্রদূত, বিশ্ব মানবতার জননী, সাম্যতার ভিত্তিতে বিশ্ব অর্থনৈতিক উন্নয়নে অনুকরনীয় নেতৃত্ব। ৭৫ পরবর্তী অন্ধকার সময়ে খুনী স্বৈরাচারের যাঁতাকলে পৃষ্ট এদেশ ও মানুষের মুক্তি, গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠা ও জনগনের ভাগ্যের পরিবর্তনের ১৯৮১ সালে জন্য বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের হাল ধরেন আজকের বিশ্বনেত্রী জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। স্বৈরাচারী সরকার সেদিন তাঁকে এবং ছোট বোন রেহানাকে নির্বাসনে থাকতে বাধ্য করেছিলেন। কিন্তু তাঁর অদম্য ইচ্ছা শক্তির কাছে হার মানে স্বৈরাচার। 

 

তিনি ১৮৮১ সালের ১৭ মে সর্বোচ্চ ঝুঁকি নিয়ে খুনী সরকারের রক্তচক্ষুকে উপেক্ষা করে দেশে ফিরেন। লক্ষ্য ছিল বাংলার মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন ও গনতন্ত্র উদ্ধার করে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা। বার বার কারাভোগ ও নিশ্চিত মৃত্যুর মুখোমুখি হয়েও লক্ষ্যচ্যুত হননি তিনি। দীর্ঘ লড়াই সংগ্রামে নেতৃত্ব দিয়ে তিনি রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিতে সক্ষম হন। অল্প সময়ে সকল সূচকে অভাবনীয় উন্নতি সাধন করে দেশকে বিশ্ববাসীকে বিষ্ময়ে অভিভূত করে অনন্য মর্যাদায় আসীন করেছেন। বিশ্ব জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় তিনি এখন পথ প্রদর্শক,  মানবতার মূর্ত প্রতিক, দক্ষ শাসক। আজ তাঁর জন্মের শুভ ক্ষণটিকে স্মরণ করে তাঁর নিরাপদ, নিরোগ ও দীর্ঘ জীবন কামনায় আমি রাব্বুল আল আমিনের দরবারে দু’হাত তুলে ফরিয়াদ জানাচ্ছি।

 

সভায় অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ, শফিক আদনান, সাংস্কৃতিক সম্পাদক হাজী আবু তাহের, উপপ্রচার সম্পাদক শহিদুল আলম, অধ্যাপক মাসুম চৌধুরী, ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি সামশুল আলম, ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আশরাফুল আলম, ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি নুর মোহাম্মাদ, ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি মো. রাশেদ আলী জাহাঙ্গীর, ১৭নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের আহবায়ক মো. ইউনুস কোম্পানি, ১৮নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি আহমদ ইলিয়াস, ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক সাইফুদ্দিন খালেদ, ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক শেখ সোরোয়ার্দী, ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আবদুর রহিম, ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক মো. নাজিমউদ্দিন, ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক এডভোকেট আইয়ুব খান,  ১৬ নং  ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি  আমিনুল হক রন্জু, ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের  যুগ্ম আহবায়ক মো. জসিম উদ্দিন, ১৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক  আলী নেওয়াজ,  ১৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক মো. মুসা ও আকবর আলি আকাশ, ১৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক হাজী সেলিম রহমান, বেসরকারি কারা পরিদর্শক আজিজুর রহমান আজিজ, সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা নাছির উদ্দিন নোবেল, আব্দুর রাজ্জাক, মাহমুদ ইউসুফ মিনার,আবু সাঈদ সুমন, সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা হাবিবুর রহমান তারেক, আরাফাত রহমান কচি, নোমান চৌধুরী সহ-সভাপতি চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগ,চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সাধারন সম্পাদক রনি মির্জা, হাসান আলী, চান্দগাঁও থানা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. শাহেদ, চান্দগাঁও  থানা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক শহিদুল আলমসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন, এলাকার বিভিন্ন সমাজের সর্দ্দারবৃন্দ, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ এবং যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, ছাত্রলীগ ও এলাকার সর্বস্তরের জনসাধারণ।

চট্টগ্রাম


শেয়ার