সোনালী মুরগিকে দেশী মুরগী বলে বিক্রি অত:পর জরিমানা গুনল বিক্রেতা





শেয়ার

চট্টগ্রাম: নগরীতে এক ক্রেতার কাছে সোনালী মুরগীকে দেশী মুরগী বলে বিক্রি করায় জরিমানা গুনতে হয়েছে এক বিক্রেতাকে। এসময় ওই বিক্রেতাকে ৭ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয় এবং ক্রেতাকে টাকা ফেরত দেয়ারও নির্দেশ দেয়া হয়।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম এর বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয় কর্তৃক গত ২৫ সেপ্টেম্বর শুক্রবার চট্টগ্রাম মহানগরীর বায়েজিদ ও চান্দগাঁও থানায় এপিবিএন এর সহযোগীতায় অভিযান পরিচালিত হয়। 

সকাল ১০টা হতে পরিচালিত অভিযানে ১০ প্রতিষ্ঠানকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর বিভিন্ন ধারায় মোট ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয় এর উপপরিচালকমোহাম্মদ ফয়েজ উল্যাহ্, সহকারী পরিচালক (মেট্রো) পাপীয়া সুলতানা লীজা এবং চট্টগ্রাম জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান অভিযান পরিচালনা করেন।

অভিযানে দেখা যায়, নগরীর বায়েজীদ থানার ক্যান্টনমেন্ট কাঁচা বাজারে চাল, পেঁয়াজসহ অন্যান্য নিত্যপণ্যের পাইকারি ও খুচরা বিক্রেতাদের মূল্য তালিকা এবং পণ্য ক্রয় রশিদ পর্যবেক্ষণ করা হয়। ব্যবসায়ীবৃন্দকে পেঁয়াজসহ অন্যান্য নিত্যপণ্যের মূল্য তালিকা দৃশ্যমান স্থানে প্রদর্শন করতে অনুরোধ করা হয়।

অভিযানে আরো দেখা যায়, মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করায় খুলশী থানাধীন কর্নফুলী কমপ্লেক্স এর মূঈনিয়া স্টোরকে ২হাজার টাকা, হাজী স্টোরকে ২হাজার টাকা, মক্কা স্টোরকে ২হাজার টাকা, আজিজ সওদাগরের মাংসের দোকানকে ২হাজার টাকা, মঞ্জুর সওদাগরের মাংসের দোকানকে ২হাজার টাকা, নিউ শাহ্ আমানত স্টোরকে ২হাজার টাকা, আলমগীর পোলট্রি হাউসকে ৩হাজার টাকা, আল বারাকাত স্টোরকে ৬হাজার টাকা জরিমানা করে সতর্ক করা হয়েছে।

বায়েজিদ থানার বায়েজিদ বাজারের শাহাদাত স্টোরকে মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করায় ২হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। একই থানার ক্যান্টনমেন্ট কাঁচা বাজারের জনতা পোলট্রিকে পূর্বে সতর্ক করা সত্বেও  মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করায় ৫হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

জনস্বার্থে এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলেও জানান চট্টগ্রাম জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান।

 

চট্টগ্রাম


শেয়ার