হেরে যাওয়ার ভয়ে যুদ্ধবিরতি চেয়েছিলেন নেতানিয়াহু।





শেয়ার

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ সংগঠন হামাস এবং ইসলামি জিহাদ আন্দোলনের ভয়াবহ রকেট হামলার মুখে যুদ্ধবিরতির জন্য আমেরিকার কাছে ধরনা দিয়েছিলেন বলে চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ করেছে ইসরায়েলি সংবাদপত্র ইয়েদিয়োথ অহরোনথ।

শনিবার (৫ জুন) প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে সংবাদপত্রটি জানিয়েছে, ১১ দিনের যুদ্ধে হামাসের রকেট হামলার মুখে নিরুপায় হয়ে ইসরায়েল যুদ্ধবিরতির ক্ষেত্রে আমেরিকার মধ্যস্থতা কামনা করে।

সংবাদপত্রটির তথ্য অনুসারে, ইসরায়েল যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসনের সঙ্গে যুদ্ধবিরতির জন্য বারবার যোগাযোগ করেছে যাতে যুক্তরাষ্ট্র মিসর এবং আরও কয়েকটি দেশের ওপর চাপ সৃষ্টি করে যুদ্ধবিরতির ব্যবস্থা করে।

তবে জো বাইডেন প্রশাসন এ ব্যাপারে তেমন একটা আগ্রহ দেখায়নি। ফলে মিসরকে ইসরায়েল নিজেই বার্তা পাঠায় এবং মার্কিন অনুমোদন নিয়ে মিশর যেন হস্তক্ষেপ করে।

এদিকে হামাসের গাজা উপত্যকার প্রধান ইয়াহিয়া সিনওয়ার বলেছেন, ইসরায়েলের সঙ্গে আরেকটি যুদ্ধ হলে মধ্যপ্রাচ্যের অবয়ব পাল্টে যাবে। তিনি বলেন, এই যুদ্ধের মাধ্যমে এটি প্রমাণিত হয়েছে যে, আল-আকসা মসজিদের একটি শক্তিশালী প্রতিরক্ষা বাহিনী রয়েছে এবং পবিত্র এই মসজিদ রক্ষা করা হচ্ছে কৌশলগত লক্ষ্য।

উল্লেখ, জেরুজালেমে পবিত্র আল আকসা মসজিদে ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর হামলার পর ইসরায়েলে রকেট হামলা চালায় হামাস। এরপরেই গাজায় বিমান হামলা শুরু করে ইসরায়েল। গত ১০ মে থেকে ২০ মে গাজায় বোমা হামলা ও গোলাবর্ষণ করে তারা। এতে ২৩০ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে ৬৫টি শিশু রয়েছে। এ ছাড়া হামাসের রকেটে ১২ ইসরায়েলি নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

আন্তর্জাতিক


শেয়ার